শিরোনাম
নব নির্বাচিত এমপি আলহাজ্ব হাবীব হাসানের কাছে ঢাকা ১৮ আসনের জনগনের প্রত্যাশা ই-পাসপোর্ট যুগে প্রবেশ ৩টি রকেট আঘাত হানলো বাগদাদের মার্কিন দূতাবাদের কাছে সিপিবি’র সমাবেশে বোমা হামলা মামলায় ১০ আসামির মৃত্যুদণ্ড চ্যারিটেবল ট্রাস্ট মামলা: খালেদার জামিন খারিজের পূর্ণাঙ্গ রায় প্রকাশ দুর্ঘটনায় গুরুতর আহত শাবানা আজমি: ‘কর্মফল’ হিসেবে দেখছেন বিজেপি সমর্থকরা সংসদ সদস্য আব্দুল মান্নানের মৃত্যুতে প্রধানমন্ত্রীর শোক বিপিএল-এ এবারের চ্যাম্পিয়ন রাজশাহী কেন্দ্রীয় সরকারের ডাকা জরুরি বৈঠকে যাবে না তৃণমূল কংগ্রেস নতুন কমিশন অনুযায়ী সাপ্তাহিক মজুরি পেতে শুরু করেছে পাটকল শ্রমিকরা

আশা এবং ভয় জান্নাত প্রাপ্তির উৎস

উত্তরা টাইমস
সম্পাদনাঃ ১৩ আগস্ট ২০১৫ - ০২:১৯:০২ পিএম

ইসলাম, ডেস্কঃ ভয় ও আশা আল্লাহর এক বড় অনুগ্রহ। আল্লাহ মানুষকে তার রহমত থেকে নিরাশ না হতে নির্দেশ করেছেন। কেননা মানুষের পরকালীন মুক্তির জন্য শুধুমাত্র  ইবাদত বন্দেগিই যথেষ্ট নয়। সবচেয়ে বেশি যে জিনিসটি মানুষের প্রয়োজন তা হচ্ছে আশা এবং ভয়। মানুষের মধ্যে আল্লাহর ভয় এবং রহমতের আশা থাকলে ঐ বান্দাকে আল্লাহ নাজাত দিতে পারেন। কারণ যে বান্দা আল্লাহকে ভয় করে এবং রহমত আশা করে, সে বান্দাহর এই আশা এবং ভয়ই একত্ববাদের বিশাল পরিচয় বহন করে। জাগো নিউজের পাঠকদের জন্য আল্লাহর প্রতি বান্দার ভয় সম্পর্কিত একটি হাদিস তুলে ধরা হলো-

হাদিসে কুদসি হতে…
হজরত আবু সাঈদ খুদরি রাদিয়াল্লাহ আনহু হতে বর্ণিত, তিনি রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লামের বরাত দিয়ে বলেছেন যে, তোমাদের পূর্ববর্তী এক লোককে আল্লাহ তাআলা ধন-সম্পদ ও সন্তান-সন্তুতি দান করেছিলেন। যখন তার মৃত্যুর সময় ঘনিয়ে এসেছিল তখন তিনি তার ছেলেদেরকে লক্ষ্য করে বললেন- আমি তোমাদের পিতা হিসেবে কেমন ছিলাম। তারা বললেন- আপনি পিতা হিসেবে উত্তম ছিলেন। রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম বলেন, সে কোনো নেক আমল করে আল্লাহর দরবারে জমা রেখে যাননি।

তাই সে তার ছেলেদেরকে বললেন- একথা খেয়াল রেখ, আমি যখন মারা যাব, তখন আমার মৃত দেহকে জ্বালিয়ে দিবে এবং এর কয়লাকে ভালভাবে পিষে ঝড়ের দিনে বাতাসে উড়িয়ে দিবে। রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম বলেন, ঐ ব্যক্তি এ বিষয়ে তার ছেলেদের কাছ থেকে অঙ্গিকার গ্রহণ করেছিলেন। (সে মারা যাওয়ার পর) তার ছেলেরা ওয়াদা মতে তার মৃতদেহের ছাইকে এক প্রবল ঝঞ্চা বায়ুর দিনে বাতাসে উড়িয়ে দিল।

এরপর আল্লাহ আদেশ করলেন, ‘হয়ে যাও’ অমনি সে ব্যক্তি পূর্ণাঙ্গ মানুষ হয়ে আল্লাহর দরবারে হাজির হয়ে গেল। তখন আল্লাহ বললেন- হে আমার বান্দাহ! তুমি এ কাজ কেন করেছিলে?

তখন সে বলল- আপনার ভয়ে, আপনার সামনে হাজির না হওয়ার জন্য। তারপর রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম বলেছেন, ‘আল্লাহ তাকে অনুগ্রহ (রহমত) করেছিলেন। রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম আরো বলেছেন, আল্লাহ তাকে শাস্তি না দিয়ে মাপ করে দিয়েছেন। (বুখারি ও মুসলিম)

মানুষের আবশ্যক কর্তব্য আল্লাহর হুকুম-আহকাম যথাযথ পালন করা। আল্লাহ সর্ববিষয়ের ওপর ক্ষমতাবান। আল্লাহ তাআলা বান্দাকে মাপ করে দেয়ার জন্য, বান্দার আমল গ্রহণের জন্য, বান্দার কল্যাণে সদা রহমান ও রাহিম। সুতরাং মহিয়ান আল্লাহ রাব্বুল আলামিনের অসীম অনুগ্রহ কামনায় আল্লাহর ভয় ও ভালোবাসা লাভ করি। আল্লাহ আমাদের যথাযথভাবে তার হুকুম আহকাম পালন করার তাওফিক দান করুন। আল্লাহ ভয় এবং ভালোবাসা আমাদের অন্তরে তৈরি করে দিন। আল্লাহ আমাদের সব নেক আমল কবুল করে গুনাহ মাপ করে ইসলামি জীবন-যাপন করার তাওফিক দান করুন। আমিন।

জাগো নিউজ ২৪ ডটকমের সঙ্গে থাকুন। হাদিসের সুন্দর সুন্দর আলোচনা পড়ুন। কুরআন-হাদিস মোতাবেক আমলি জিন্দেগি যাপন করে আল্লাহর নৈকট্য অর্জন করুন। আমিন, ছুম্মা আমিন।

এ বিভাগের জনপ্রিয় খবর

সর্বশেষ
জনপ্রিয় খবর

Uttara Times

Like us on Facebook!
Sign up for our Newsletter

Enter your email and stay on top of things,

Subscribe!