শিরোনাম
নব নির্বাচিত এমপি আলহাজ্ব হাবীব হাসানের কাছে ঢাকা ১৮ আসনের জনগনের প্রত্যাশা ই-পাসপোর্ট যুগে প্রবেশ ৩টি রকেট আঘাত হানলো বাগদাদের মার্কিন দূতাবাদের কাছে সিপিবি’র সমাবেশে বোমা হামলা মামলায় ১০ আসামির মৃত্যুদণ্ড চ্যারিটেবল ট্রাস্ট মামলা: খালেদার জামিন খারিজের পূর্ণাঙ্গ রায় প্রকাশ দুর্ঘটনায় গুরুতর আহত শাবানা আজমি: ‘কর্মফল’ হিসেবে দেখছেন বিজেপি সমর্থকরা সংসদ সদস্য আব্দুল মান্নানের মৃত্যুতে প্রধানমন্ত্রীর শোক বিপিএল-এ এবারের চ্যাম্পিয়ন রাজশাহী কেন্দ্রীয় সরকারের ডাকা জরুরি বৈঠকে যাবে না তৃণমূল কংগ্রেস নতুন কমিশন অনুযায়ী সাপ্তাহিক মজুরি পেতে শুরু করেছে পাটকল শ্রমিকরা

রাজধানীর জলাবদ্ধতা নিরসন ১০ মিনিটেই!

উত্তরা টাইমস
সম্পাদনাঃ ২৪ জুলাই ২০১৫ - ০৯:৪২:০২ এএম

টাইমস বিডি ডটনেট, ঢাকা: জলাবদ্ধতা নিরসনে এবার নতুন করে যুক্ত হচ্ছে অত্যাধুনিক যন্ত্র ‘জেট অ্যান্ড সাকার মেশিন’। উন্নত বিশ্বে ব্যবহৃত সর্বাধুনিক প্রযুক্তির যন্ত্রটি ড্রেন থেকে যাবতীয় ময়লা-আবর্জনা টেনে নিয়ে পানি আলাদা আবার করে ড্রেনে ছেড়ে দেবে। এ যন্ত্র মাত্র ১০ মিনিটের মধ্যে ১২০ মিটার দৈর্ঘ্যের ড্রেনের ময়লা পরিষ্কার করে স্বাভাবিক প্রবাহ ফিরিয়ে আনতে পারবে।
প্রায় ১০ কোটি টাকা ব্যয়ে জার্মানি থেকে মেশিনটি আমদানি করেছে ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশন (ডিএনসিসি)। বৃহস্পতিবার রাজধানীর বারিধারার নতুনবাজার এলাকায় যন্ত্রটির পরীক্ষামূলক ব্যবহারও করা হয়।
পরীক্ষামূলকভাবে যন্ত্রটি পরিচালনা করেন জার্মানির কাইজার কোম্পানির গ্লোবাল ইঞ্জিনিয়ার ভল্কার। তিনি জানান, যন্ত্রটি প্রতিদিন ২২ ঘণ্টা করে কাজ করতে পারবে। প্রতি ১০ মিনিটের মধ্যে ১২০ মিটার দীর্ঘ ড্রেন সম্পূর্ণ পরিষ্কার করা যাবে। মেশিনটি পরিচালনা করতে লাগবে তিনজন। আগামী সাতদিন ধরে এই মেশিনটি পরিচালনা করার জন্য কয়েকজনকে তিনি প্রশিক্ষণ দেবেন। এছাড়া এক বছরের মধ্যে কোনো সমস্যা হলে তারা সার্বিক সহযোগিতা দেবে।
ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের প্রধান বর্জ্য ব্যবস্থাপনা কর্মকর্তা ক্যাপ্টেন বিপন কুমার সাহা বলেন, ‘প্রায় ১০ কোটি টাকা দিয়ে জার্মানির তৈরি এই জেট অ্যান্ড সাকার মেশিনটি কিনেছে ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশন (ডিএনসিসি)। রাজধানীর জলাবদ্ধতা নিরসনের কাজে এটা ব্যবহার করা হবে। উন্নত বিশ্বে ড্রেন পরিষ্কার ও জলজট নিরসনের জন্য এ যন্ত্র ব্যবহার হয়।’
বাংলাদেশে এই প্রথম যন্ত্রটির ব্যবহার শুরু করেছে ডিএনসিসি। ডিএনসিসিকে এটা সরবরাহ করেছে ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান সোহেল ইঞ্জিনিয়ারিং অ্যান্ড কনস্ট্রাকশন লিমিটেড ও মেসার্স সোহেল এন্টারপ্রাইজ।
ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানটির চিফ কনসালট্যান্ট (কারিগরি) প্রকৌশলী নূরুল ইসলাম বলেন, ‘আগামী এক বছর ঠিকাদারি ও নির্মাতা প্রতিষ্ঠানের তত্ত্বাবধানে এটি পরিচালিত হবে। কাজ শেষে এটা এক স্থান থেকে আরেক স্থানে নিয়ে যাওয়ার জন্য একজন প্রশিক্ষিত চালক নিয়োগ দিয়েছেন। তিনি আগে গ্রীনলাইন কোম্পানির ভলবো বাস চালাতেন। এছাড়া জেট অ্যান্ড সাকার মেশিনের নির্মাতা প্রতিষ্ঠান জার্মানির কাইজার কোম্পানি থেকে দুজন দক্ষ টেকনিশিয়ান এসেছেন। তারা মেশিনটি পরিচালনার জন্য আগামী সাতদিন সিটি করপোরেশনের কয়েকজন প্রকৌশলীকে প্রশিক্ষণ দেবেন। সব মিলিয়ে আগামী এক বছর এটি পরিচালনার দায়িত্ব পালন করবে সরবরাহকারী ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান ও নির্মাতা প্রতিষ্ঠান। আগামী মাসের শুরু থেকেই এটা সার্বক্ষণিক ড্রেন পরিষ্কারের কাজে ব্যবহার শুরু করেবে ডিএনসিসি।’
ময়লা-আবর্জনা পড়ে পানি নিষ্কাশনের ড্রেন ভরাটই রাজধানীর জলাবদ্ধতার প্রধান কারণ। বিশেষজ্ঞরা বলছেন, অত্যাধুনিক এই মেশিন ব্যবহার করতে পারলে রাজধানীতে আর জলাবদ্ধতা থাকবে না।
সূত্র: বাংলামেইল২৪ডটকম।

সর্বশেষ
জনপ্রিয় খবর

Uttara Times

Like us on Facebook!
Sign up for our Newsletter

Enter your email and stay on top of things,

Subscribe!