শিরোনাম
নব নির্বাচিত এমপি আলহাজ্ব হাবীব হাসানের কাছে ঢাকা ১৮ আসনের জনগনের প্রত্যাশা ই-পাসপোর্ট যুগে প্রবেশ ৩টি রকেট আঘাত হানলো বাগদাদের মার্কিন দূতাবাদের কাছে সিপিবি’র সমাবেশে বোমা হামলা মামলায় ১০ আসামির মৃত্যুদণ্ড চ্যারিটেবল ট্রাস্ট মামলা: খালেদার জামিন খারিজের পূর্ণাঙ্গ রায় প্রকাশ দুর্ঘটনায় গুরুতর আহত শাবানা আজমি: ‘কর্মফল’ হিসেবে দেখছেন বিজেপি সমর্থকরা সংসদ সদস্য আব্দুল মান্নানের মৃত্যুতে প্রধানমন্ত্রীর শোক বিপিএল-এ এবারের চ্যাম্পিয়ন রাজশাহী কেন্দ্রীয় সরকারের ডাকা জরুরি বৈঠকে যাবে না তৃণমূল কংগ্রেস নতুন কমিশন অনুযায়ী সাপ্তাহিক মজুরি পেতে শুরু করেছে পাটকল শ্রমিকরা

দুর্বল কোমেনের প্রভাবে ঝড়বৃষ্টি, সারাদেশে নিহত ৭

উত্তরা টাইমস
সম্পাদনাঃ ৩১ জুলাই ২০১৫ - ০৮:৩৫:৩৩ এএম

বৃহস্পতিবার ভোর থেকে দিবাগত মধ্যরাত পর্যন্ত এসব প্রাণহানির খবর পাওয়া যায়।

এ ছাড়া ঘূর্ণিঝড়ের কবলে পড়ে বৃহস্পতিবার ভোলার চরফ্যাশনে ৩টি মাছধরা ট্রলার ডুবে ২৪ জেলে নিখোঁজ ও চর কুকরি মুকরিতে ১৪ জেলে নিখোঁজ হয়েছেন।

আবহাওয়া সূত্র জানিয়েছে, রাজধানীতে বাতাসের তীব্রতার গতিবেগ ছিলো ঘণ্টায় ৫০-৬০ কিলোমিটার।

শুক্রবার ভোররাতের দিকে রাজধানী ঢাকাসহ সারাদেশে শুরু হয় বাতাস সঙ্গে ঝড়ো বৃষ্টি। যা এখনও চলছে। দিনভর এই আবহাওয়া বিরাজ করবে বলে জানিয়েছে আবহাওয়া বিভাগ।

এর আগে বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে নয়টার পর সন্দ্বীপ ও দশটার পর ঘূর্ণিঝড়টি হাতিয়ার উপকূল অতিক্রম করে শুক্রবার সকালে নোয়াখালী ও এর আশপাশের এলাকায় স্থল নিম্নচাপে পরিণত হয়েছে। একই সঙ্গে ৭ বিপদ সংকেত নামেয়ে ৩ নম্বর সতর্ক সংকেত জারি করা হয়েছে।

বঙ্গোপসাগর থেকে পশ্চিম ও উত্তর-পশ্চিম দিকে ধাবিত হওয়ার সময় ঝড়টির সর্বোচ্চ গতিবেগ ছিলো ঘণ্টায় ৮০ থেকে ১শ’ কিলোমিটার। তবে বর্তমানে আগের তুলনায় অনেকখানি দুর্বল হয়েছে ঝড়টি। কমেছে বাতাসের গতিবেগও।

চট্টগ্রাম-কক্সবাজার সমুদ্রবন্দরে এবং মংলা ও পায়রাবন্দরকে পূর্বের বিপদ সংকেত নামিয়ে বর্তমানে ৩ নম্বর সতর্ক সংকেত দেখিয়ে যেতে বলেছে আবহাওয়া অধিদপ্তর।

সাতজনের মৃত্যু

ঘূর্ণিঝড় কোমেনের প্রভাবে উত্তর বঙ্গোপসাগর ও তৎসংলগ্ন বাংলাদেশের উপকূলীয় এলাকা ও দ্বীপগুলোতে ঝড়ো হাওয়া বইছে। ইতোমধ্যে ঝড়ের প্রভাবে সাতজনের মৃত্যুর খবর পাওয়া গেছে। এরমধ্যে তিনজনের মৃত্যু হয়েছে উপড়েপড়া গাছের চাপায়। তারা হলেন কক্সবাজারের সেন্ট মার্টিনে মো. ইসলাম (৫০), পটুয়াখালীর গলাচিপায় মো. নুরুল ইসলাম ফকির (৫২) ও ভোলার লালমোহন উপজেলায় মনজুমা বেগম (৫৫) নামে তিনজন মারা গেছেন।

এছাড়া কক্সবাজারের মহেশখালীতে নৌকাডুবি ও দেয়াল ধসে তিনজন নিহত হয়েছেন। মহেশখালী থানার অফিসার ইনচার্জ (তদন্ত) দিদারুল ফেরদৌস সংবাদমাধ্যমকে জানান, দুর্যোগপূর্ণ আবহাওয়া খবর পেয়ে মহেশখালী উপকূলে ফেরত আসার সময় তাজিয়াকাটা ও সোনাদিয়া পয়েন্টে আটজন জেলে নিয়ে নৌকাটি ডুবে যায়। এরপর সাঁতার কেটে কোনো রকম ছয়জন জেলে তীরে উঠলেও দুইজন জেলে নিখোঁজ থাকে। পরে বৃহস্পতিবার দুপুর ১টায় তাজিয়ারকাটা এলাকা থেকে নিখোঁজ দুই জেলের মৃতদেহ উদ্ধার করা হয়। নিহতরা হলেন- তাজিয়ারকাটা গ্রামে জেলে কালা মিয়া (৩৪) ও সাইফুল (২৫)।

বৃহস্পতিবার ভোরে একই উপজেলার পাহাড়তলী এলাকায় দেয়াল ধসে হুমাইরা বেগম (৫) নামের এক শিশুর মৃত্যু হয়। হুমায়রা বেগম বড় মহেশখালীর পাহাড়তলী গ্রামের ছৈয়দ নুরের মেয়ে। এ ছাড়া ঝড়ে পটুয়াখালীতে একজন নিহত হয়েছেন। নিহত ওই ব্যক্তির নাম পরিচয় জানা যায়নি।

৩ ট্রলার ডুবি, নিখোঁজ ৩৮

ঘূর্ণিঝড়ের কবলে পড়ে বৃহস্পতিবার ভোলার চরফ্যাশনে ৩টি মাছধরা ট্রলার ডুবে ২৪ জেলে নিখোঁজ ও চর কুকরি মুকরিতে ১৪ জেলে নিখোঁজ হয়েছেন।

সর্বশেষ
জনপ্রিয় খবর

Uttara Times

Like us on Facebook!
Sign up for our Newsletter

Enter your email and stay on top of things,

Subscribe!