শিরোনাম
নব নির্বাচিত এমপি আলহাজ্ব হাবীব হাসানের কাছে ঢাকা ১৮ আসনের জনগনের প্রত্যাশা ই-পাসপোর্ট যুগে প্রবেশ ৩টি রকেট আঘাত হানলো বাগদাদের মার্কিন দূতাবাদের কাছে সিপিবি’র সমাবেশে বোমা হামলা মামলায় ১০ আসামির মৃত্যুদণ্ড চ্যারিটেবল ট্রাস্ট মামলা: খালেদার জামিন খারিজের পূর্ণাঙ্গ রায় প্রকাশ দুর্ঘটনায় গুরুতর আহত শাবানা আজমি: ‘কর্মফল’ হিসেবে দেখছেন বিজেপি সমর্থকরা সংসদ সদস্য আব্দুল মান্নানের মৃত্যুতে প্রধানমন্ত্রীর শোক বিপিএল-এ এবারের চ্যাম্পিয়ন রাজশাহী কেন্দ্রীয় সরকারের ডাকা জরুরি বৈঠকে যাবে না তৃণমূল কংগ্রেস নতুন কমিশন অনুযায়ী সাপ্তাহিক মজুরি পেতে শুরু করেছে পাটকল শ্রমিকরা

আর্তমানবতার সেবায় নিবেদিত “হাসানুর রহমান”

উত্তরা টাইমস
সম্পাদনাঃ ২৮ মে ২০১৭ - ১০:১৯:৫৪ পিএম

তরুন সমাজ সেবক হাসানুর রহমানের সামাজিক অবক্ষয় নিয়ে চিন্তা-চেতনা থেকেই “স্বপ্নিল বাংলাদেশ” এর স্বপ্ন যাত্রার শুরু। হাসানুর রহমান দেশ ও জাতির কল্যাণে নিজেকে শত ব্যস্ততার মাঝেও সমাজ সেবায় নিয়োজিত রেখে চলেছেন। তার এই সৃজনশীল চিন্তা … এই সত্য-সুন্দরকে বুকে ধারন, তিনি এক সময় পরিবার-সমাজ-দেশ-জাতি সর্বোপরি বিশ্বকে করতে পারেন আলোকিত। …. আর তবেই আমরা এক এক করে সকল সমস্যা, দুর্যোগ, ক্ষুধা, দারিদ্র্য, অভাবগ্রস্ততাসহ মানুষের সেবায় গড়তে পারবো সুন্দর-সুস্থ সমাজ-দেশ-জাতি।

“তুমি যদি দৃশ্যমান মানুষকে ভালবাসতে না পারো, তবে অদৃশ্য ঈশ্বরকে কী করে ভালবাসবে?” মাদার তেরেসার এই আদর্শে উজ্জীবিত হয়ে আর্তমানবতার সেবার ব্রত নিয়ে পথচলা শুরু করেছে “স্বপ্নিল বাংলাদেশ“-নামে একটি সংগঠন। ভালোবাসা, সহযোগিতা, সহমর্মীতা একটি মানবিক অনুভূতি এবং আবেগকেন্দ্রিক একটি অভিজ্ঞতা। বিশেষ কোন মানুষের জন্য স্নেহের শক্তিশালী বহিঃপ্রকাশ হচ্ছে ভালোবাসা। ভালোবাসা, সহযোগিতা, সহমর্মীতা কে না চায়। কিন্তু চাইলেই কি তা পাওয়া যায়? যায় না বলেই আমাদের সমাজের দরিদ্র-অসহায় মানুষ বঞ্চিত হন। হৃদয়হীন এই সমাজে দুখী মানুষের কথা কজনই বা ভাবে? হৃদয়হীন এই সমাজে কেউ না কেউ তো ভাবে। আর যারা ভাবে, আমরা অপদার্থের দল তাদের এগিয়ে যাওয়ার জন্য প্রেরণা না দিয়ে, অনেক সময় কটু সমালোচনা করি। যদি আমরা ধর্ম মানি, তাহলে এটাকে সনাতন ভাষায় বলতে গেলে অন্যায়-পাপ বলা ছাড়া আর কিছুই বলা যাবে না। আবার এই সমাজের কিছু মানুষ আছেন যারা এসব সস্তা সমালোচনার তোয়াক্কা না করে মানুষের কল্যানে নিজেদের উৎসর্গ করে দৃষ্টান্ত রেখেছেন। তাদেরই অন্যতম একজন হচ্ছেন, আর্তমানবতার সেবায় নিবেদিত “হাসানুর রহমান”।

হাসানুর রহমানের ঐকান্তিক প্রচেষ্টার ফসল বলা যেতে পারে “স্বপ্নিল বাংলাদেশ“কে । এই সেদিন সংগঠনটির জন্ম। হাতের আঙ্গুলের কড় গুণে বলা যাবে “স্বপ্নিল বাংলাদেশ“-এর জন্মের দিন ক্ষণ..। মাত্র ক’দিন আগে ভূমিষ্ঠ হওয়া এই সংগঠণটি ইতিমধ্যেই সাড়া জাগিয়েছে ভাগ্যাহত মানুষের মাঝে। এ বিষয়ে “হাসানুর রহমান” মনে করেন, “যান্ত্রিকতা যখন নিজের স্বার্থ নিহিত চাওয়াকে নিশ্চিত করে, আমরা তখন হাফ ছেড়ে বাঁচার দৃষ্টান্তে পৌঁছাই। কিন্তু প্রত্যেকেই জীবনের চলার পথে আলস্য নিঃশ্বাস নিতে পারার কালেভদ্রে সুযোগ পেলেই নিজেকে বড় অসহায় ও স্বার্থপর বলেই রায় দেয়।

আমরা আসলে কি করছি, কি ভাবছি, দুনিয়া কিভাবে এগুচ্ছে, পরের জীবনটাই বা কেমন হবে, পরজনমে পুরস্কৃত হওয়ার সুযোগ মিলবে কিনা, এমন অযুত প্রশ্ন যখন সামনে চলে আসে তখন আর পার্থিব জীবন প্রীতিতে থাকা দায় হয়ে পড়ে। আমি বিশ্বাস করতে চাই, ঘর-বাহির সম্যক আপনারাও উদ্বিগ্ন হওয়ার অভ্যাসে থাকেন। সামর্থ্যের মানদন্ড দাড় করিয়ে আসুন না, মানবিকতাকে কাছে টেনে সমাজের বৃত্তে আলোক রশ্মির প্রভাব রাখার মতো আমরা যার যার অবস্থান হতে কিছু করি। সমাজের বিত্তবানদের এই আহ্বান মা-মাটি-মানুষের জন্য হাসানুর রহমানের চিন্তা ও মননশীলতা পরিচয় বহন করে। হাসানুর রহমানের ভাষায়,“আমরা সব সময় বলে থাকি, সরকার সব করবে। তাদের দায়িত্ব দেয়া হয়েছে। ৫ বছরের মাথায় একটিবার সীল মারতে পেরেই যেন আমরা ধন্য। না, শুধু সরকার নয়, আমাদেরকেই বেশী করে সমাজ সচেতন হয়ে নাগরিক অধিকার নিশ্চিত করতে হবে। যে দলই রাষ্ট্রীয় ক্ষমতায় থাকবে, যাবে বা আসবে, তারা চেষ্টা করছে বা করবে, আসল কাজটা কিন্তু আমাদেরই।”

এভাবেই “স্বপ্নিল বাংলাদেশ“কে সামনে রেখে এগিয়ে চলেছে হাসানুর রহমানের আর্তমানবতায় সেবার জয়রথ। হতদরিদ্র মানুষের কল্যণে “স্বপ্নিল বাংলাদেশ“ এগিয়ে যাক এটা সৃষ্টিশীল সব মানুষের প্রত্যাশা। স্বার্থান্ধ এই সমাজে হতদরিদ্র মানুষের বাঁচার প্রেরণা হোক হাসানুর রহমানসহ তার সতীর্থদের এই প্রতিষ্ঠানটি। নিজ স্বক্রীয়তায় মানুষের হৃদয়ের মনি কোঠায় জুড়ে বিরাজ করুক “স্বপ্নিল বাংলাদেশ“এর কীর্তিগাথা। যা আগামী নতুন ও আগামী প্রজন্মকে পথের দিশা দিক। হাসানুর রহমানের মানুষের জন্য কিছু করার দৃঢ় মনেবলের প্রমান মেলে তার এই বক্তব্যে..“ নিজের প্রচারণা করার জন্য নয়- আমি চেষ্টা করছি মানুষের পাশে দাঁড়াতে। যাতে করে সকলের মধ্যে থাকা ‘আত্ম বিবেক’ জাগ্রত হয়ে আমরা সবাই, সবার হতে পারি।

“স্বপ্নিল বাংলাদেশ” এর এক স্বপ্ন সারথি ঠিক এই ভাষাতে হাসানুর রহমানের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন, “স্বপ্নিল বাংলাদেশ” এর মাননীয় সভাপতি “হাসানুর রহমান” আমরা “স্বপ্নিল বাংলাদেশ” পরিবার আপনার কাছে কৃতজ্ঞ। এমন একটা প্ল্যাটফর্ম তৈরি করার জন্য। যে সংগঠনের ছায়াতলে আজ আমরা সমাজ কে বদলে দেবার প্রয়াসে সংগ্রাম করছি তাতো আপনারই অবদান। আপনার সামাজিক অবক্ষয় নিয়ে চিন্তা-চেতনা থেকেই “স্বপ্নিল বাংলাদেশ” এর স্বপ্ন যাত্রার শুরু।আপনি ভেবেছেন, সংগঠন গড়েছেন বলেই আজ আমরা লড়ছি । আমাদের স্বপ্ন গুলো “স্বপ্নিল বাংলাদেশ” এর সাথে জুড়ে দিয়ে আমরাও সামজিক মূল্যবোধে উজ্জীবিত এক অনন্য বাংলাদেশ গড়ার প্রচেষ্টায় লিপ্ত হয়েছি। আবারো “স্বপ্নিল বাংলাদেশ” এর স্বপ্নদ্রষ্টা সভাপতি “হাসানুর রহমান”এর প্রতি ভালবাসা ও কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি ও আশা রাখছি আপনার বলিস্ট নেত্রিত্তে “স্বপ্নিল বাংলাদেশ” পূরণ করবে হাজারো তরুনের স্বপ্ন।

সর্বশেষ
জনপ্রিয় খবর

Uttara Times

Like us on Facebook!
Sign up for our Newsletter

Enter your email and stay on top of things,

Subscribe!