শিরোনাম
নব নির্বাচিত এমপি আলহাজ্ব হাবীব হাসানের কাছে ঢাকা ১৮ আসনের জনগনের প্রত্যাশা ই-পাসপোর্ট যুগে প্রবেশ ৩টি রকেট আঘাত হানলো বাগদাদের মার্কিন দূতাবাদের কাছে সিপিবি’র সমাবেশে বোমা হামলা মামলায় ১০ আসামির মৃত্যুদণ্ড চ্যারিটেবল ট্রাস্ট মামলা: খালেদার জামিন খারিজের পূর্ণাঙ্গ রায় প্রকাশ দুর্ঘটনায় গুরুতর আহত শাবানা আজমি: ‘কর্মফল’ হিসেবে দেখছেন বিজেপি সমর্থকরা সংসদ সদস্য আব্দুল মান্নানের মৃত্যুতে প্রধানমন্ত্রীর শোক বিপিএল-এ এবারের চ্যাম্পিয়ন রাজশাহী কেন্দ্রীয় সরকারের ডাকা জরুরি বৈঠকে যাবে না তৃণমূল কংগ্রেস নতুন কমিশন অনুযায়ী সাপ্তাহিক মজুরি পেতে শুরু করেছে পাটকল শ্রমিকরা

অভিনয় দিয়ে দর্শক হৃদয় জয় করতে চান নিশানা খন্দকার

উত্তরা টাইমস
সম্পাদনাঃ ০৮ এপ্রিল ২০২০ - ০৫:২০:৪০ পিএম

বিনোদন প্রতিবেদক: নিশানা খন্দকার কৃপা। বর্তমান সময়ে বিনোদন জগতের প্রতিক্ষেত্রেই যার পদচারণা। নাচ, গান আর অভিনয়ে যার পারফরমেন্স ইতোমধ্যে মন কেড়েছে দর্শকদের। শুধু তাই নয়, নাটক আর বিজ্ঞাপনে নেওয়ার জন্য পরিচালক ও প্রযোজকরা রীতিমতো ভীড় জমাচ্ছেন কৃপার কাছে।

নিশানা খন্দকার কৃপা জন্মগ্রহণ করে গাজীপুর জেলার কালিয়াকৈর গ্রামে। তার ডাক নাম দিলু। বাসার সবাই আদর করে তাকে এই নামেই ডাকে। বাবা মৃত খন্দকার আব্দুল জলিল সরকারী প্রাইমারী স্কুলের একজন শিক্ষক ছিলেন। মা রুলিয়া তালুকদার গৃহিনী। বাবা মারা যাওয়ার পর মা আর এক ছোট ভাইকে নিয়েই কৃপাদের সংসার। ছোটবেলা থেকেই কৃপার নাচ আর অভিনয়ের প্রতি ভীষণ ঝোঁক ছিল। তাই তখন থেকেই শুরু করে নাচ আর অভিনয় শিক্ষার ক্লাস। তার মা এবং ছোট ফুফুর উৎসাহে এবং প্রচেষ্টায় কৃপাকে আটকে থাকতে হয়নি কোন কিছুতেই। মেয়েকে ভালো একজন অভিনেত্রী হিসেবে গড়ে তুলতে রুলিয়া তালুকদার মেয়ে কৃপাকে একদিকে যেমন সাহস জুগিয়েছেন, ঠিক তেমনি নাচ আর অভিনয় শেখাতেই পঞ্চম শ্রেণীতে পড়াকালীন সময়েই তাকে রাজধানীর খিলগাঁওয়ে অবস্থিত ঘাসফুল নদী শিল্পী গোষ্ঠীতে ভর্তি করিয়ে দেন।

নিশানা খন্দকার কৃপার শৈশব আর কৈশোর কেটেছে গাজীপুর আর খালার বাসা ঢাকাতেই। কালিয়াকৈর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে তার শিক্ষাজীবন শুরু হয়। ষষ্ঠ শ্রেণীতে কালিয়াকৈর উচ্চ বিদ্যালয়ে ভর্তি হয়ে সেখান থেকেই এসএসি পাশ করেন। কালিয়াকৈর ডিগ্রী কলেজ থেকে পাশ করেন এইচএসসি। বর্তমানে তিনি ডিগ্রীতে অধ্যয়নরত।

কৃপা পড়াশুনার পাশাপাশি ক্ল্যাসিকাল ও মডার্ণ ড্যান্সে আর অভিনয় বিদ্যায় নিজেকে পারদর্শী করে তোলার যুদ্ধে নিজেকে গড়ে তুলতে শুরু করেন। তার জীবনের প্রথম পারফরমেন্স হিসেবে শিল্পকলা একাডেমীতে আব্দুস সালাম পরিচালিত ‘আলোমতি প্রেমকুমার’ নামক মঞ্চ নাটকে নায়িকা চরিত্রে অভিনয় করেন। অভিনয় করে পেয়েছেন সুনাম, হয়েছেন দর্শকনন্দিত। এছাড়াও কয়েকটি র‌্যাম্প ওয়াকেও অংশগ্রহণ করেছেন। বর্তমানে জিম আর কারাতে প্রশিক্ষণেও নিজেকে ব্যাস্ত রাখছেন কৃপা।

শুটিংয়ের ব্যাস্ততার মাঝেও জনপ্রিয় অনলাইন নিউজ পোর্টাল উত্তরা টাইমস’র সাথে একান্ত সাক্ষাতকারে নিজের ভাবনা ও স্বপ্নগুলো নিয়ে কথা বললেন খন্দকার নিশানা খন্দকার কৃপা।

উত্তরা টাইমস: কেমন আছেন?
কৃপা: আল্লাহর রহমতে আর সবার দোয়াই ভালোই আছি।

উত্তরা টাইমস: খুব অল্প সময়ে মিডিয়াতে একটি ভালো অবস্থান আপনি তৈরী করেছেন। এ ব্যাপারে আপনার অনুভূতি কি?
কৃপা: জি¦। মায়ের উৎসাহ আর সহযোগিতা, নিজের ইচ্ছাশক্তি, চেষ্টা এবং শ্রম দিয়েই আজ আমি এ অবস্থানে এসেছি। আর এর সঠিক অনুভূতি প্রকাশ করার ভাষা আমার জানা নেই। তবে একটা কথা বলতে পারি, অভিনয় দিয়ে দর্শকদের যে প্রশংসা আর ভালোবাসা পেয়েছি তাতে আমি পরিতৃপ্ত এবং আশাবাদী। ভবিষ্যতে আরও অনেক ভালো অভিনয় উপহার দিবো দর্শকদের।

উত্তরা টাইমস: মিডিয়ার কোন কোন সেক্টরে আপনি ইতোমধ্যে নিজেকে সংযুক্ত করেছেন?
কৃপা: এ্যাস্ট্রন টেলিভিশন, জ্যাক শাড়ী ও আলাউদ্দিন পার্কসহ মোট তিনটি বিজ্ঞাপনচিত্র আমি করেছি। হয়েছি লাইফস্টাইল ও ক্ল্যাসিক ম্যাগাজিনের প্রচ্ছদ মডেল।

উত্তরা টাইমস: কয়টি নাটক ও শর্টফিল্মে অভিনয় করেছেন?
কৃপা: মিডিয়াতে মঞ্চ নাটকের মধ্য দিয়েই আমার যাত্রা শুরু হয়। এ পর্যন্ত অনেকগুলো মঞ্চ নাটকে মূল বিপরীত চরিত্রে অভিনয় করেছি। তবে এগুলোর মধ্যে আব্দুস সালাম পরিচালিত ‘আলোমতি প্রেমকুমার’ ও ‘বেঁদের মেয়ে’ নাটকে অভিনয় করে সাড়া পেয়েছি ব্যাপকভাবে। বিটিভিতে লালনশাহ ও কহিনুর নামক দু’টি মঞ্চ নাটকও করেছি। এছাড়া প্রায় ষোলটি শর্টফিল্মে নায়িকার চরিত্রে অভিনয় করেছি। বিতৃষ্ণা, মানবতা, থাবা, বন্ধুত্ব, প্রেমের জন্য, পেঁয়াজ চুন্নি ও হ্যান্ডসাম চুমকি উল্লেখযোগ্য। যার কয়েকটি আমার নিজের পরিচালনা ও প্রযোজনাতেই হয়েছে। আর বিশেষ করে বাংলাদেশ টেলিভিশনের নাটকে ফজলুল হক বাবু ও মনিরা মিঠুর সাথে ভিমরতি নাটকে, সদ্ভুত ও অদ্ভুত এবং অপূর্ব রানা পরিচালিত মনিরা মিঠু, শতাব্দী ওয়াদুদ ও সাব্বির আহম্মেদের সাথে সুখের আশা নাটকেও অভিনয় করেছি।

উত্তরা টাইমস: আপনার রোল মডেল কে?
কৃপা: বাংলাদেশের চলচ্চিত্র জগতের উজ্জল নক্ষত্র মরহুম আনোয়ার হোসেন, আনোয়ারা এবং নায়িকা মৌসুমী।

উত্তরা টাইমস: অবসরে কি করতে ভালোবাসেন?
কৃপা: ভ্রমণ আর শপিং করতে।

উত্তরা টাইমস: আপনার ভবিষ্যত পরিকল্পনা কি?
কৃপা: শুধু নাটকেই নয় বরং চলচ্চিত্র জগতেও অসাধারণ অভিনয়ের মাধ্যমে ঠাঁই করে নিতে চাই দর্শক হৃদয়ে।

উত্তরা টাইমস: অসংখ্য ধন্যবাদ আপনাকে সময় দেওয়ার জন্য। আপনার উজ্জল ভবিষ্যত কামনা করছি। রইলো শুভকামনা।
কৃপা: জনপ্রিয় নিউজ পোর্টাল উত্তরা টাইমসকেও অশেষ ধন্যবাদ। উত্তরা টাইমস এর উত্তরোত্তর সাফল্য কামনা করছি।

এ বিভাগের জনপ্রিয় খবর

সর্বশেষ
জনপ্রিয় খবর

Uttara Times

Like us on Facebook!
Sign up for our Newsletter

Enter your email and stay on top of things,

Subscribe!