শিরোনাম
নব নির্বাচিত এমপি আলহাজ্ব হাবীব হাসানের কাছে ঢাকা ১৮ আসনের জনগনের প্রত্যাশা ই-পাসপোর্ট যুগে প্রবেশ ৩টি রকেট আঘাত হানলো বাগদাদের মার্কিন দূতাবাদের কাছে সিপিবি’র সমাবেশে বোমা হামলা মামলায় ১০ আসামির মৃত্যুদণ্ড চ্যারিটেবল ট্রাস্ট মামলা: খালেদার জামিন খারিজের পূর্ণাঙ্গ রায় প্রকাশ দুর্ঘটনায় গুরুতর আহত শাবানা আজমি: ‘কর্মফল’ হিসেবে দেখছেন বিজেপি সমর্থকরা সংসদ সদস্য আব্দুল মান্নানের মৃত্যুতে প্রধানমন্ত্রীর শোক বিপিএল-এ এবারের চ্যাম্পিয়ন রাজশাহী কেন্দ্রীয় সরকারের ডাকা জরুরি বৈঠকে যাবে না তৃণমূল কংগ্রেস নতুন কমিশন অনুযায়ী সাপ্তাহিক মজুরি পেতে শুরু করেছে পাটকল শ্রমিকরা

অযথাই রেগে যাচ্ছেন? জানুন কারণ ও প্রতিকার

উত্তরা টাইমস
সম্পাদনাঃ ১১ অক্টোবর ২০২১ - ০২:২০:১৬ পিএম

লাইফস্টাইল ডেস্কঃ-
মানসিক চাপ, উদ্বেগ ও হতাশা হচ্ছে এমন তিনটি বিষয়, যা অপ্রত্যাশিতভাবে আমাদের রাগকে বাড়িয়ে দিতে পারে। এমন অবস্থায় যে কোনো সময়, যে কারও ওপরেই রাগ হতে পারে।

রাগ হওয়াটা মানুষের আবেগের একটি অংশ হলেও অযথাই যে কারও ওপর রাগ হাওয়াটা মোটেও স্বাস্থ্যকর না এবং এটি আমাদের মানসিকভাবেও ক্ষতি করে।

যেসব বিষয়ে অকারণে রাগ হয়, আসুন জেনে নিই সেই সম্পর্কে—

১. অস্বাভাবিক সম্পর্ক
মানুষের সঙ্গে অস্বাভাবিকভাবে সম্পর্ক বা মাত্রাতিরিক্ত সম্পর্ক হওয়ার ফলে এমন একটি পরিস্থিতি দাঁড়ায়, যখন আপনার সব কিছুতেই হ্যাঁ বলতে হয়। ফলে একসময় আপনার ভেতরে বিরক্ত কাজ করে। এমনকি এটিও মনে হতে পারে যে, মানুষ আপনার সুবিধা গ্রহণ করছে। এ কারণে অযথা ওই ব্যক্তির ওপর রাগ হতে পারে।

২. মূল্যায়নের অভাব
আপনি মানুষের কাছ থেকে যখন মূল্যায়ন পাওয়ার অতিরিক্ত প্রত্যাশা করবেন, তখন নিজেকে অসম্মানিত মনে হতে পারে। আর বিষয়টি সেই ব্যক্তিকে জানানোর পরও যদি আপনি অমূল্যায়িত হয়ে থাকেন, তা হলে আপনার অযথাই রাগ কাজ করতে পারে।

৩. নিয়ন্ত্রণে সমস্যা
সব কিছুর ওপরে নিয়ন্ত্রণ রাখা উচিত। আপনার রাগ হলেই সেটিতে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে পরিস্থিতি সামলিয়ে উঠতে না পারেন, তবে তা একটি খারাপ পরিস্থিতিতে পরিণত হতে পারে। তাই চেষ্টা করবেন রাগের সময় যতটা সম্ভব নিজেকে নিয়ন্ত্রণে রাখার।

৪. আবেগ চেপে রাখা
আপনার আবেগ যখন প্রকাশ করতে পারবেন না, তখন আপনার প্রায়ই এ কারণে রাগ হতে পারে। কেউ কখনই নিজের অনুভূতির সবটা চেপে রাখতে পারে না। আর এমনটি করা হলে তা এক সময় বিরক্তি আকারে বড় হয়ে এলোমেলোভাবে রাগের আকারে প্রকাশ পেতে পারে।

৫. কোনো বিষয় বুঝতে না পারা
যখন কোনো বিষয়ে আপনি পরিষ্কারভাবে বোঝার ক্ষমতা হারাবেন, তখন আপনার নিজেকেই অনেকটা আক্রমণাত্মক মনে হতে পারে। আর এ কারণে আপনার অনিয়ন্ত্রিতভাবে রাগ হতে পারে।

৬. চিকিৎসাসংক্রান্ত সমস্যা
নানা রকম চিকিৎসাসংক্রান্ত সমস্যা যেমন অ্যাটেনশন ডেফিসিট হাইপারঅ্যাক্টিভিটি ডিসঅর্ডার (এডিএইচডি), বর্ডারলাইন পারসোনালিটি ডিসঅর্ডার (বিপিডি), প্রিমেনস্ট্রুয়াল ডিসফোরিক ডিসঅর্ডার (পিএমডিডি) ছাড়াও আরও অনেক কিছু চিকিৎসা জনিত কারণে আপনার হঠাৎ করে রাগের অনুভূতি হতে পারে। এমনটি মনে হলে ডাক্তারের সঙ্গে পরামর্শ করে চিকিৎসা নিতে পরেন।

তথ্যসূত্র: টাইমস অব ইন্ডিয়া

সর্বশেষ
জনপ্রিয় খবর

Uttara Times

Like us on Facebook!
Sign up for our Newsletter

Enter your email and stay on top of things,

Subscribe!